কক্সবাজার এর অর্গানিক শুটকি!

ব্যবসা মহৎ বৃত্তি। এখানে কমিটমেন্টের মূল্য সবচাইতে বেশি।আমরা যা দিতে পারব না তা আমরা মুখ ফুঁলিয়ে কখনো বলবো না। শুটকির ফেরিওয়ালা সবসময় গ্রাহকের পরিতৃপ্তের কথা মাথায় রেখে কক্সবাজারের শুটকি খলা থেকে বিষমুক্ত ও পুষ্টিগুন সমৃদ্ধ অর্গানিক শুটকি গ্রাহকের কাছে সরবরাহ করে থাকে।

See Our Shutki

গ্রাহকের পরিতৃপ্তিতে আমরা পরিতৃপ্ত

কক্সবাজারের স্বাদের শুটকি বিশ্বস্থ ও সততার সহিত গ্রাহকের কাছে পৌছে দেওয়ার একটি নির্ভরযোগ্য অনলাইন সার্ভিস শুটকির ফেরিওয়ালা ।
শুটকির ফেরিওয়ালা
শুটকি খাওয়ার উপকারীতা
 ● রুচিবর্ধক খাবারগুলোর মধ্যে শুটকি মাছ অন্যতম। এতে ভিটামিন ‘ডি’-এর (সূর্যের আলোতে থাকে ভিটামিন ‘ডি’) পরিমাণ রয়েছে পর্যাপ্ত অনুপাতে। ভিটামিন ‘ডি’ হাড়, দাঁত, নখের গঠন মজবুত করার জন্য যথেষ্ট জরুরি। ● শরীরের জন্য উপকারী অনেক রকম খনিজ লবণ রয়েছে এই মাছে। খনিজ লবণ আমাদের রক্তশূন্যতা দূর করে, দাঁতের মাড়িকে করে দৃঢ়। ● এতে আয়রন, আয়োডিনের মাত্রা বেশি থাকার জন্য দেহে রক্ত বাড়ায়, দেহের রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতাকে করে শক্তিশালী, শরীরের হরমোনজনিত সমস্যাকে রাখে দূরে। ● অনেক মানুষ আছেন যারা প্রোটিন বা আমিষের অভাবজনিত নানা সমস্যাতে ভুগে থাকেন। তারা যদি নিয়মিত বিভিন্ন মাছের শুটকি গ্রহণ করে থাকেন তবে এই ঘাটতি খুব সহজেই পূরণ করা সম্ভব। ● নিয়মিত শুটকি খেলে রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা বাড়ে। বিশেষ করে যারা নিয়মিত শুটকি খেয়ে অভ্যস্ত তাদের সহজে জ্বর, সর্দি হয় না।

শুটকি গ্রহনে সতর্কতা:

● শুটকি প্রক্রিয়াজাতকরণ ও সংরক্ষণের সময় প্রচুর লবণ দেওয়া হয়। তাই উচ্চ রক্তচাপ ও হৃদ্‌রোগীদের জন্য এটি ক্ষতিকর হতে পারে। ● বাত ও কিডনির রোগীদের বেশি শুটকি খাওয়া উচিত নয়। ● যাদের কিডনিতে ক্যালসিয়াম পাথর হওয়ার ঝুঁকি আছে, তাঁরাও শুটকি এড়িয়ে চলবেন। ● ইদানীং শুটকি সংরক্ষণে ক্ষতিকর কীটনাশক ডিডিটি-জাতীয় উপাদান দেওয়া হয়। তাই রান্নার আগে হালকা গরম পানিতে ভিজিয়ে বারবার পরিষ্কার পানি দিয়ে ধুয়ে নেবেন। ● যে উৎস থেকে শুটকি কেনা হয়েছে তা কেমিক্যালমুক্ত কিনা নিশ্চিত হতে না পারলে গর্ভবতী মায়েদের শুটকি পরিহার করা উচিত। ● শুটকি ভর্তা বা তরকারি দিয়ে যেভাবেই রান্না করুন না কেন তেল এবং মসলার পরিমাণ কম না থাকলে তা শরীরে উপকার করার চাইতে অপকার করবে। তাই শুটকির পুষ্টির গুণাগুণ বজায় রাখার জন্য যত কম তেলে রান্না করা যায় ততই মঙ্গল।

শুটকিতে কী উপাদান আছে?

বাংলাদেশে অনেক এলাকায় শটকি মাছ খাওয়ার প্রবণতা আছে। রুপচাঁদা, লইট্টা, ছুরি, ছোট চিংড়ি, গজার, পুঁটি, কাঁচকি ইত্যাদি মাছ শুকিয়ে শুটকি তৈরি করা হয়। এটি বেশ জনপ্রিয় পদ। কথা হলো শুটকি মাছ কি খাওয়া খারাপ, নাকি এতে কোনো উপকারিতা আছে?
আসুন, জেনে নিই কোন ধরনের শুটকিতে কী উপাদান আছে?
প্রতি ১০০ গ্রামে আমিষ, প্রোটিন ও খনিজ লবণ
ছোট চিংড়ির শুটকি: ৬২ দশমিক ৪ গ্রাম প্রোটিন, ৩৫৩৯ মিলিগ্রাম ক্যালসিয়াম, ৩৫৪ মিলিগ্রাম ফসফরাস, ২৮ গ্রাম লৌহ ও ২৯২ ক্যালরি।
ছুরি শুটকি: ৭৬ দশমিক ১ গ্রাম প্রোটিন, ৭৩৯ মিলিগ্রাম ক্যালসিয়াম, ৭০০ মিলিগ্রাম ফসফরাস, ৪ দশমিক ২ মিলিগ্রাম লৌহ, ৩৮৩ ক্যালরি।
টেংরার শুঁটকি: ৫৪ দশমিক ৯ গ্রাম প্রোটিন, ৮৪৩ মিলিগ্রাম ক্যালসিয়াম, ৪০০ মিলিগ্রাম ফসফরাস, ৫ মিলিগ্রাম লৌহ ও ২৫৫ ক্যালরি।
লইট্টার শুটকি: ৬১ দশমিক ৭ গ্রাম প্রোটিন, ১৭৮১ মিলিগ্রাম ক্যালসিয়াম, ২৪০ মিলিগ্রাম ফসফরাস, ২০ মিলিগ্রাম লৌহ ও ২৯৫ ক্যালরি।
ফাইস্যা মাছের শুটকি: ১১ গ্রাম প্রোটিন, ১১৭৬ মিলিগ্রাম ক্যালসিয়াম, ৪৭৮ মিলিগ্রাম ফসফরাস, ১৮ মিলিগ্রাম লৌহ ও ৩৩৬ ক্যালরি।
Play Video

Our Shutki Collection

The best way to experience our wide collection of sweets is to visit the store. Follow the aromas and choose the most enticing sweets to satisfy your palate.

Contact With Us